ঢাবি-এ তিন জাতীয় অধ্যাপককে সংবর্ধনা

ঢাবি-এ তিন জাতীয় অধ্যাপককে সংবর্ধনা

88
0
SHARE

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ও ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের যৌথ উদ্যোগে গতকাল ২৮ জুলাই ২০১৮ শনিবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে নতুন নিয়োগ পাওয়া তিন জাতীয় অধ্যাপককে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। সংবর্ধনা প্রাপ্তরা হলেন- অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান ও অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই এসোসিয়েশেনের সভাপতি এ. কে. আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। সম্মানিত অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ ও প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ। স্বাগত বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম ও ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের মহাসচিব রঞ্জন কর্মকার।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, তার সৌভাগ্য যে তিনি জাতীয় অধ্যাপক নির্বাচন কমিটির প্রধান হিসেবে কাজ করেছেন। নিজের অভিজ্ঞতার কথা উল্লেখ করে তিনি জানান, ‘গত কয়েক বছর ধরে তিনি এই কমিটির প্রধান। এর চেয়ে ভালো মনোনয়ন এর আগে আর দিতে পারেননি। অর্থমন্ত্রী এই তিন জনের সঙ্গে নিজের দীর্ঘ স্মৃতিচারণা করে বলেন, অধ্যাপক আনিসুজ্জামান জীবন্ত অভিধান। বাংলা বিষয়ে কোনো কিছু বুঝতে অসুবিধা হলে তাঁর শরণাপন্ন হই। ভাষা আন্দোলন আমাদের মাঝে জাগ্রত রেখেছেন অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম। আর জামিলুর রেজা চৌধুরী প্রকৌশল শিক্ষাকে কাজে লাগিয়ে দেশের জন্য অনন্য অবদান রেখে চলেছেন।’

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, এই তিন অধ্যাপকের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান জাতীয় সংবর্ধনায় পরিণত হয়েছে। এই তিন কৃতী ব্যক্তির কারণে দেশ অনেক উপকৃত হয়েছে। তাঁরা জাতির বাতিঘর। তাঁরা নিজ কর্মের আলোকে জাতিকে আলোকিত করে তুলেছেন। এই তিন বরেণ্য ব্যক্তি কর্মবীর এবং জাতিকে তাঁরা আলোক নির্দেশনা দেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জাতীয় অধ্যাপকরা তাঁদের স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন।

অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান বলেন, জাতীয় অধ্যাপকের যে সম্মান আমাকে দেওয়া হয়েছে, আমি তাতে নিজেকে ধন্য মনে করছি। এর যোগ্য কিনা, জানি না। ভালোবাসার দৃষ্টিতে দেখলে সামান্য জিনিসও অসামান্য হয়ে ওঠে। আমি আমার বাকি জীবন সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও গবেষণামূলক কাজে যেন জড়িত থাকতে পারি।’

অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘ছাত্র হবার আগে থেকেই ১৯৪৩ সাল থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার সঙ্গে আমার যোগাযোগ। ৫০’ সালে ছাত্র হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আসি। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে আমার নানা স্মৃতি বিজড়িত।

অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী বলেন, ‘আমার আইএসসি এবং বিএসসি ফার্স্ট পার্ট পরীক্ষার সনদপত্র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর ও রেজিস্ট্রারের সই করা। তাই এ বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যালামনাই হিসেবে নিজেকে দাবি করতে পারি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্পর্ক অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY