বীরপ্রতীক কাকন বিবি-এর মৃত্যুতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের শোক প্রকাশ

বীরপ্রতীক কাকন বিবি-এর মৃত্যুতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের শোক প্রকাশ

43
0
SHARE

একাত্তরের বীর মুক্তিযোদ্ধা বীরপ্রতীক কাকন বিবি-এর মৃত্যুতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

এক শোকবাণীতে উপাচার্য বলেন, একাত্তরে অনন্য সাহসের দৃষ্টান্ত স্থাপনকারী ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা কাকন বিবি। মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তিনি জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি পাকিস্তানি বাহিনীর বিপক্ষে শুধু গুপ্তচর হিসেবেই কাজ করেননি, সম্মুখযুদ্ধেও অংশগ্রহণ করেছেন। স্বাধীন বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলন-সংগ্রামে তাঁর অনবদ্য ভূমিকার জন্যও তিনি স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

উপাচার্য মরহুমার রূহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং তাঁর পরিবারের শোক-সন্তপ্ত সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

কাকন বিবি নৃ-গোষ্ঠী খাসিয়া সম্প্রদায়ের এক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭০ সালে দিরাই উপজেলার শহীদ আলীর সঙ্গে কাকনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তার পরিবর্তিত নাম হয় নুরজাহান বেগম। তার বাড়ি সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারাবাজার উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের ঝিরাগাঁও গ্রামে। কাকন বিবি তিন দিনের কন্যাসন্তান সখিনাকে রেখে যুদ্ধে চলে যান। তিনি প্রায় ২০টি যুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশ নেন। মুক্তিযুদ্ধে অসামান্য অবদানের জন্য ১৯৯৬ সালে তাকে বীরপ্রতীক খেতাব দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, কাকন বিবি গতকাল ২১ মার্চ ২০১৮ বুধবার রাতে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। মৃতুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ১০৩ বছর।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY