ঢাবি-এ ‘শিক্ষা ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের অর্জন’ শীর্ষক সেমিনার

ঢাবি-এ ‘শিক্ষা ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের অর্জন’ শীর্ষক সেমিনার

25
0
SHARE

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক উপ-কমিটির উদ্যোগে আজ ১৬ নভেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবন মিলনায়তনে ‘শিক্ষা ক্ষেত্রে আওয়ামীলীগ সরকারের অর্জন’ শীর্ষক একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবদুল খালেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ এমপি এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান, প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এমিরিটাস অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী এবং বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক  আবদুল মান্নান। সেমিনারে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল কাসেম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য-সচিব শামসুন নাহার চাপা।

শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ এমপি বলেন, বাংলাদেশের শিক্ষা ক্ষেত্রে উন্নয়ন, সম্প্রসারণ এবং অগ্রযাত্রায় আওয়ামী লীগ সরকারের অপরিসীম অর্জন অব্যাহত রয়েছে। তিনি শিক্ষার উন্নয়নে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচী বিস্তারিতভাবে আলোকপাত করেন। শিক্ষামন্ত্রী চমৎকার একটি তথ্য বহুল প্রবন্ধ উপস্থাপনের জন্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল কাসেমকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান ‘শিক্ষা ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগ সরকারের অর্জন’ শীর্ষক সেমিনার ঢাবি ক্যাম্পাসে আয়োজন করার জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক উপ-কমিটির নেতৃবৃন্দকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, দক্ষ মানব সম্পদ তৈরী করাই বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ। বাংলাদেশে শিক্ষা ক্ষেত্রের অর্জন নিয়ে আজ আমরা গর্ববোধ করি। আজ আমরা শিক্ষার যে উচ্চস্তরে পৌঁছেছি, তার পেছনে  রয়েছে ১৯৭২ থেকে ১৯৭৫ পর্যন্ত জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বল্প সময়ের শাসন আমলে নেয়া বিভিন্ন সাহসী পদক্ষেপ। এ প্রসঙ্গে উপাচার্য উল্লেখ করেন, বঙ্গবন্ধু ৩৬ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ করে এবং বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশ-১৯৭৩ প্রদান করে বাংলাদেশের প্রাথমিক শিক্ষা থেকে শুরু করে উচ্চ শিক্ষার উন্নয়নে যে বীজ বপণ করেছিলেন, তার সুফল আজ আমরা পাচ্ছি।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY