ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা আয়োজনে দিনব্যাপী নবান্ন উৎসবের উদ্বোধন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা আয়োজনে দিনব্যাপী নবান্ন উৎসবের উদ্বোধন

25
0
SHARE

জাতীয় নবান্নোৎসব উদযাপন পর্ষদ-এর আয়োজনে আজ ১৫ নভেম্বর ২০১৭ বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের বকুলতলায় ২০তম নবান্ন উৎসবের উদ্বোধন করা হয়েছে। এ লক্ষ্যে সকালে উৎসবের উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। উদ্বোধনের পর ‘নবান্ন কথন’ শিরোনামের আলোচনা পর্ব এবং শেষে উৎসবের সাংস্কৃতিক পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

উদ্বোধনী বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, এই নবান্ন উৎসব একটি উদার, সার্বজনীন ও অসাম্প্রদায়িক উৎসব। গ্রামীণ সম্প্রদায়ের মানুষের এই উৎসব গণমানুষের উৎসব, খেটে খাওয়া মানুষের উৎসব। তিনি বলেন, আশ্বিন মাসকে আমাদের এলাকায় বলা হত দারুণ আশ্বিন, এ মাসে অভাব অনটন লেগেই থাকত। গুটিকয়েক ধনাঢ্য পরিবার ছাড়া  আর কারো ঘরে ধানই থাকত না। পরে আসত অগ্রহায়ণ। সবার ঘরে সোনালী আমন ধান। সে ধান সার্বজনীন। পরিশেষে উপাচার্য গণমুখী, মানবতাবাদী মানুষ হতে গেলে ও একটি উদার-নৈতিক সমাজ গড়তে গেলে প্রতিটি মানুষের উৎসব নবান্নে সামিল হওয়া প্রয়োজন বলে জানান।

সাংস্কৃতিক পর্বের শুরুতে ছিল সমবেত নৃত্য পরিবেশনা। লোকগানের সঙ্গে নৃত্যের পাশাপাশি অগ্রহায়ণে বাংলার প্রধান ফসল ধান কাটা নিয়ে ছিল বিভিন্ন গান। পটগান, ধামাইয়া গানসহ বিভিন্ন ধরনের লোকগানের সঙ্গে দেশের গান ও লালনগীতি আর রবীন্দ্র সংগীত আবৃত্তি পর্ব পরিবেশিত হয়।। শেষে গারোদের নবান্ন উৎসব ‘ওয়ানগালা’র ঐতিহ্য পরিবেশন করে নৃত্য সংগঠন পরিবেশন করেন আচিকের শিল্পীরা।

পরে চারুকলা অনুষদ থেকে বিভিন্ন লোকজ অনুষঙ্গ নিয়ে এক শোভাযাত্রা বের করে নবান্নোৎসব উদযাপন পর্ষদ। শোভাযাত্রাটি টিএসসি মোড় ঘুরে আবার চারুকলায় গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রা শেষে চারুকলার বকুলতলায় চিত্রশিল্পীদের অংশগ্রহণের শুরু হয় নবান্নের আর্ট ক্যাম্প। এতে অংশ নেন অধ্যাপক সমরজিৎ রায় চৌধুরী, আবদুস শাকুর শাহ, আবুল মান্নান, রেজাউন নবী, কামাল পাশা চৌধুরী, জাহিদ মোস্তফা, অশোক কর্মকার, নাসিমা তুহিনী, হিরন্ময় দাশ, রাশেদুল হুদা-সহ ২২ জন চিত্রশিল্পী।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY