ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশ্ব পর্যটন দিবস পালিত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশ্ব পর্যটন দিবস পালিত

20
0
SHARE

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগ এবং বাংলাদেশ পর্যটন বোর্ডের যৌথ উদ্যোগে আজ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ বুধবার বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ‘বিশ্ব পর্যটন দিবস’ পালিত হয়েছে। এবছর দিবসটির প্রতিপাদ্য হচ্ছে “Sustainable Tourism – a tool for development.”  এ উপলক্ষে দিনব্যাপী কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়। কর্মসূচীর মধ্যে ছিল র‌্যালি, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের নেতৃত্বে বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ চত্বর থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি কলাভবন হয়ে টিএসসি গিয়ে শেষ হয়। পরে টিএসসি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. শাকের আহমেদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি প্রধান অতিথি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। স্বাগত বক্তব্য দেন ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ইএমবিএ প্রোগ্রামের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. আফজাল হোসেন।

বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি পর্যটনকে টেকসই উন্নয়নের হাতিয়ার হিসাবে বর্ণনা করে বলেন, বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যকে ব্যবহার করে পর্যটন শিল্পের বিকাশ ঘটাতে হবে। এই শিল্পের বিকাশে প্রশিক্ষিত জনবল দরকার। এক্ষেত্রে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগ অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে পারে। মন্ত্রী বলেন, পর্যটন শিল্পের বিকাশে ‘জঙ্গিবাদ’ প্রধান অন্তরায়। তাই জঙ্গিবাদ নির্মূলে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, শৃঙ্খলাবোধ, অসাম্প্রদায়িকতা, অন্যের প্রতি যতœশীল হওয়া ও উদারতা প্রদর্শন টেকসই পর্যটনের পূর্ব শর্ত। তাই পর্যটন শিল্পের কর্মী তথা  তরুণ প্রজন্মকে সহনশীল ও মানবিক গুণে গুণান্বিত হতে হবে।

উল্লেখ্য, প্রতি বছর ২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবস পালন করা হয়। ১৯৮০ সাল থেকে এই দিবসটি পালিত হয়ে আসছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY