ঢাবি-এ ৩দিনব্যাপী প্রথম আন্তর্জাতিক মূকাভিনয় উৎসব

ঢাবি-এ ৩দিনব্যাপী প্রথম আন্তর্জাতিক মূকাভিনয় উৎসব

88
0
SHARE

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মাইম অ্যাকশন (ডুমা) এর আয়োজনে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে তিনদিনব্যাপী আন্তর্জাতিক মূকাভিনয় উৎসব। গত ১৭ এপ্রিল ২০১৭ সোমবার সন্ধ্যায় ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র মিলনায়তনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উৎসবের উদ্বোধন করেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশস্থ নেপাল দূতাবাসের কাউন্সিল সেক্রেটারি দিল্লী প্রাসাদ আচার্য। সভাপতিত্ব করেন বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের চেয়ারম্যান ও মাইম অ্যাকশনের মডারেটর ফাদার ড. তপন ডি রোজারিও। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী এম এম মনিরুল আলম, থিয়েটার এন্ড পারফরমেন্স বিভাগের চেয়ারম্যান সুদীপ চক্রবর্তী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুস, বাংলাদেশ মাইম ফেডারেশনের চেয়ারম্যান জাহিদ রিপন, প্রাণ কনফেকশনারির বিপনন প্রধান মো. শাখওয়ারত আহমেদ, ডুমা’র প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মীর লোকমান, সভাপতি শাহরিয়ার শাওন প্রমুখ।

বর্ণাঢ্য এই উৎসবে অংশ নিচ্ছে জাপান, ভারত, শ্রীলংকা, নেপাল ও ভূটানের শিল্পীরা। এছাড়াও অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশের দশটি দল, মুক্তমঞ্চ নির্বাক দল, জেন্টেলম্যান প্যান্টোমাইম, জাহাঙ্গীরনগর থিয়েটার, মাইম আর্ট, বেঙ্গল থিয়েটার, সাইলেন্ট থিয়েটার, প্রভাতফেরি, নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটি মাইম সোসাইটি, মাইম অ্যাকশন ময়মনসিংহ।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক নতুন বঙ্গাব্দের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন তরুণ মিলে ‘ঢাকা ইউনিভার্সিটি মাইন একশন’ দলটি গড়ে তুলেছে। বিশ্ববিদ্যালয় তো বটেই দেশেরও বিভিন্ন স্থানে তারা মুখাভিনয় পরিদর্শন করছেন। কথা বলার ভঙ্গির উপর নির্ভর করে কথাটির অর্থ কি হবে। এই উৎসবের মাধ্যমে শুধু মূকাভিনয় প্রদর্শনই নয়, এর মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের তরুণদের মধ্যে শুধু নয়, বিভিন্ন দেশের তরুণদের মধ্যেও যোগাযোগ স্থাপিত হচ্ছে, যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এতে ভবিষ্যতে তরুণদের জন্যে বয়ে আনবে সৃজনশীলতার নতুন  সুফল।

নেপাল দূতাবাসের কাউন্সিল সেক্রেটারি দিল্লী প্রাসাদ আচার্য বলেন, না বলা কথাগুলো বলে দেওয়াটা এক অনন্য ব্যাপার। মুখাভিনয় শিল্প মাধ্যমটি দিন দিন মানুষের মাঝে জনপ্রিয়তার মাধ্যমে প্রসার লাভ করছে।

উল্লেখ্য, ছাত্রশিক্ষক কেন্দ্রে থাকবে উৎসবের মূল আয়োজন। এছাড়াও পুরো ক্যাম্পাস জুড়ে থাকবে স্ট্রিট শো। আগামীকাল ১৯ এপ্রিল বুধবার অংশগ্রহণকারী দল ও প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণের মাধ্যমে সমাপ্ত হবে আন্তর্জাতিক মূকাভিনয় উৎসব।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY