ঢাবি-এ ড. জিসি দেব স্মরণে বিশেষ সেমিনার

ঢাবি-এ ড. জিসি দেব স্মরণে বিশেষ সেমিনার

68
0
SHARE

আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন মানবতাবাদী দার্শনিক অধ্যাপক ড. গোবিন্দচন্দ্র দেবের ৪৬তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক বিশেষ সেমিনার গতকাল ২৯ মার্চ ২০১৭ বুধবার আর.সি. মজুমদার আর্টস মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গোবিন্দ দেব দর্শন গবেষণা কেন্দ্র এই সেমিনারের আয়োজন করে।

প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদের সভাপতিত্বে সেমিনারে ‘জীবনে ও দর্শনে মানবিকতা: সমকালীন তাৎপর্য‘ শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুল হক। আলোচনায় অংশ নেন কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবু মো: দেলোয়ার হোসেন ও দর্শন বিভাগের প্রবীণ অধ্যাপক ড. আমিনুল ইসলাম। গোবিন্দ দেব দর্শন গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক অধ্যাপক ড. প্রদীপ কুমার রায় অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন ।

প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ প্রয়াত অধ্যাপক জিসি দেবের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, তিনি সাধারণ জীবন-যাপন করতেন এবং সকলকে সমানভাবে ভালবাসতেন। তাঁর জীবনাদর্শ থেকে শিক্ষা নিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের ভাল মানুষ হিসাবে গড়ে ওঠতে হবে।

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুল হক তার প্রবন্ধে বলেন, বিভাজিত বিশ্বে অধ্যাপক জি সি দেব মিলনের বংশীবাদক ছিলেন। বর্তমান সংঘাতপূর্ণ বিশ্বে বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্য, বহুবাদের সঙ্গে সহাবস্থান এবং ভিন্ন মতের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে তাঁর মানবিকতার দর্শন দিক নির্দেশনা দিতে পারে।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক ড. গোবিন্দ চন্দ্র দেব ১৯০৭ সালের ১ ফেব্রæয়ারি সিলেট জেলার পঞ্চখÐ পরগণার লাউতা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯২৫ সালে স্থানীয় হরগোবিন্দ হাই স্কুল থেকে তিনি প্রথম বিভাগে ম্যাট্রিক পাশ করেন। ১৯২৭ সালে তিনি কলকাতার রিপন কলেজ থেকে প্রথম বিভাগে আই এ এবং ১৯২৯ সালে সংস্কৃত কলেজ থেকে দর্শনে অনার্সসহ বিএ পাশ করেন। তিনি ১৯৩১ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় দর্শন বিভাগের এম এ পরীক্ষায় প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অধিকার করেন। ১৯৫৩ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দর্শন বিভাগে লেকচারার হিসাবে যোগদেন এবং ১৯৬৭ সালে অধ্যাপক পদে পদোন্নতি লাভ করেন। আজীবন তিনি অকৃতদার ছিলেন। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে তিনি জগন্নাথ হলের প্রভোস্ট বাংলোয়   পাক-হানাদার বাহিনীর গুলিতে নিহত হন ।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY